পুরুষের বানানো নারীর "স্বেচ্ছা"

শনিবার, সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৯ ১০:৫৫ PM | বিভাগ : প্রতিক্রিয়া


পুরুষেরা তো বটেই এমন কি কোনো কোনো নারীবাদীও বলছেন নারী যদি "স্বেচ্ছায়" নিজের শরীরকে বানিজ্যিক ভাবে বিক্রি করে পর্নগ্রাফি ও বেশ্যালয়ে, তাহলে সেটা কোনো সমস্যা নয়, হওয়া "উচিৎ" নয়।

সুসান ব্রাউনমিলার এই ব্যাখ্যাকে হেসে উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন এই যে শব্দ "স্বেচ্ছা" সেটাও পিতৃতন্ত্রের বানানো একটা মীথ যা বেশ সফলভাবে আমাদেরকে গেলানো হয়েছে।

ব্রাউনমিলারের মতে- বেশ্যাবৃত্তিকে পেশা হিসাবে গড়ে তুলেছে পিতৃতন্ত্র, ব্রোথেলগুলো গড়ে তুলেছে পুরুষ, বাজারটা গড়ে তুলেছে পুরুষ, বাজারের নিয়ম কানুন, দর-দাম সবই পুরুষের গড়ে তোলা এমন এই বাজারের ক্রেতাও পুরুষ। আর পিতৃতন্ত্রের কাছে শুধু "ইচ্ছা" বা "স্বেচ্ছা"টা নারীর... । তিনি বলছেন- আপনি আপনার যৌনতাড়না মেটানোর জন্যে আরেকজনের মাংস কিনছেন আর বলছেন যিনি মাংস বিক্রি করছেন তিনি "স্বেচ্ছায়" বিক্রি করছেন... এটা কি যৌক্তিক? এটা হচ্ছে পিতৃতন্ত্রের "গিল্ট" অন্যের কাঁধে দেয়ার চিরন্তন চর্চার এক পোশাকী নাম- "স্বেচ্ছা" ... এটা একটা পুরুষতান্ত্রিক ধন্দ যা খুব সুকৌশলে আমাদের মাথায় ঢুকিয়ে দেয়া হয়েছে।

অবশ্য, লিবারাল ফেমিনিস্ট ও থার্ড ওয়েভের একটা অংশ সুসান ব্রাউনমিলার'দের এই দৃষ্টিভঙ্গীকে "সেক্স পিরিটারন" হিসাবে উল্লেখ করে থাকেন।

কিন্তু ব্রাউনমিলার আমার মাথায় সত্যিই একটা প্রশ্ন ঢুকিয়ে দিয়েছেন- এই যে "স্বেচ্ছা" সেটা কে এবং কিভাবে ডিফাইন করলো? যে "স্বেচ্ছা" সংজ্ঞায়িত হয় পিতৃতন্ত্রের দ্বারা, পিতৃতন্ত্রের টিকে থাকার জন্যে, সেটাকে কি সত্যিই নারীর "ইচ্ছা" বা "স্বেচ্ছা" বলা যায়?

এই প্রশ্নে চয়েস, ভ্যালু, কনটেক্সট, ফ্রেইমস ইত্যাদি কিছু জটিল আলোচনা প্রাসঙ্গিক, কিন্তু সেইটা তুলে রাখলাম। ভাবার চেষ্টা করছি- সোনাগাছি বা দৌলতদিয়াতে "স্বেচ্ছা" বিষয়টা কিভাবে কাজ করে বা করেছিলো...

(আমি কেবল সময় দিয়ে রাজনৈতিক তত্ত্ব, মতামতের প্রাসঙ্গিকতা মাপি না। তাই ব্রাউনমিলার এখনো আমার কাছে দারুন প্রাসঙ্গিক।)


  • ৮০ বার পড়া হয়েছে

পূর্ববর্তী লেখা পরবর্তী লেখা

বিঃদ্রঃ নারী'তে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার বিষয়বস্তু, ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া ও মন্তব্যসমুহ সম্পূর্ণ লেখকের নিজস্ব। প্রকাশিত সকল লেখার বিষয়বস্তু ও মতামত নারী'র সম্পাদকীয় নীতির সাথে সম্পুর্নভাবে মিলে যাবে এমন নয়। লেখকের কোনো লেখার বিষয়বস্তু বা বক্তব্যের যথার্থতার আইনগত বা অন্যকোনো দায় নারী কর্তৃপক্ষ বহন করতে বাধ্য নয়। নারীতে প্রকাশিত কোনো লেখা বিনা অনুমতিতে অন্য কোথাও প্রকাশ কপিরাইট আইনের লংঘন বলে গণ্য হবে।


মন্তব্য টি

লেখক পরিচিতি

মুহাম্মদ গোলাম সারওয়ার

মুক্তচিন্তক ব্লগার গোলাম সারওয়ার নিজেকে আড়ালে রাখতেই বেশি পছন্দ করেন।

ফেসবুকে আমরা