বাঁচতে দিন মেয়েদের

শনিবার, অক্টোবর ৭, ২০১৭ ১০:১১ AM | বিভাগ : প্রতিক্রিয়া


ধরা যাক, আপনার বাচ্চার একটা কমতি আছে। যেমন দেরীতে কথা বলছে বা একটা অংগে সামান্য অস্বাভাবিকতা আছে। তো আপনার কিছু পরম শুভাকাঙ্ক্ষী আত্মীয়স্বজন থাকবে যারা কিনা এরকম বলবে "আহারে! এত সুন্দর বাচ্চাটার এই অবস্থা!" গলায় থাকবে পরম মমতার অভিনয়।



তো আপনি যদি বেয়াক্কেল হোন তাহলে তার খোঁচাটা বুঝবেন না বরং নিজেকে দুঃখী মনে করবেন আরো। আর সেই শুভাকাঙ্ক্ষী বিজয়ের হাসি হাসবে মনে মনে কারন তার উদ্দেশ্যই ছিল আপনাকে খোঁচা দেয়া। তিনি খোঁচাটা দিতে পেরে পৈশাচিক আনন্দে তাক-ধিনাধিন নাচবেন গোপনে।

এরকম আমার এক বান্ধবী ছিলো যে কিনা বহুবার বলেছে "তোমার মেয়েটা তোমার গায়ের রঙ পেলো না(গলায় আফসোস মিশ্রিত)!" তো প্রথম কয়েকবার কিছুই বলিনি, মৃদু হেসেছি। শেষবার আর মেজাজ কন্ট্রোলে রাখতে পারিনি। বলেছি "আমি কি আমার গায়ের রঙ ধুইয়া শরবৎ খাইছি নাকি! আমার মেয়েকে তোমার ছেলের কাছে বিয়ে দেবো না। মেয়ে নিজের যোগ্যতায় চলবে, গায়ের রঙ এ নয়, ঠিক আমার মতো। এই ধরনের ফাউল কথা না বলে নিজের চরকায় দয়া করে তেল দাও।"

তো যে কথা বলার জন্য এত বড় কাহিনী টানলাম- ছেলেরা মডেলিং করলে পণ্য বলে কেউ আদিখ্যেতা দেখায় না অথচ মেয়েরা মডেলিং করলে দুনিয়ার ঢঙ! মেয়েরা নাকি নিজেরা নিজেদের ছোট করছে নিজেদের পণ্য বানিয়ে! একটা পেশা তো পেশাই। মিঃ ওয়ার্ল্ড পণ্য হয়না, মিস ওয়ার্ল্ড পণ্য হবে কেন? পণ্য হলে সবাই নইলে কেউ না। পণ্য বলে আহ্লাদী ঢঙ দেখানোর মানে কিন্তু আসলে শ্রদ্ধা বা উচ্চস্থানে বসানো নয়, মেয়েদের দাবিয়ে রাখার নতুন তরিকা।

পুরুষ শরীর দেখিয়ে বিজ্ঞাপন করলে কোন সমালোচনা নেই। মডেলিং এর ছেলেগুলি ক'জনের সাথে শুয়েছে বা কতজনের চামচা হয়েছে তা নিয়েও কোনো কথা নেই। একটা ছেলে সুন্দর প্রতিযোগিতায় যাবে, বিজ্ঞাপন করবে, গ্ল্যামার জগতে ক্যারিয়ার গড়বে তা নিয়ে বলার কিছু নেই। অথচ একই পেশার একটা মেয়েকে কেনো প্রতি পদে পদে পোস্টমর্টেম হতে হবে!

মেয়েরা পণ্য হচ্ছে, নিজেদের বিক্রি করছে এসব বলছেন লেখার শুরুর আত্মীয়ের সেই পরম মমতা ভরা গলায় খোঁচা দিয়ে! আর যদি খোঁচা না হয়, এত আদর আর শ্রদ্ধা যদি মেয়েদের প্রতি থাকে তাহলে তাদের সহযোগীতা করুন, চলার পথে সম-সহযোগী হোন। স্বাধীনতায় সমান নাগরিক হোন। মানুষ নামের নাগরিক।

নইলে বাদ দিন। প্রশংসা বা সমালোচনা দুটোই। বাঁচতে দিন মেয়েদের। ওরা তো আপনা ঘাড়ে এসে পড়েনি।

 

 


  • ৪১০১ বার পড়া হয়েছে

পূর্ববর্তী লেখা পরবর্তী লেখা

বিঃদ্রঃ নারী'তে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার বিষয়বস্তু, ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া ও মন্তব্যসমুহ সম্পূর্ণ লেখকের নিজস্ব। প্রকাশিত সকল লেখার বিষয়বস্তু ও মতামত নারী'র সম্পাদকীয় নীতির সাথে সম্পুর্নভাবে মিলে যাবে এমন নয়। লেখকের কোনো লেখার বিষয়বস্তু বা বক্তব্যের যথার্থতার আইনগত বা অন্যকোনো দায় নারী কর্তৃপক্ষ বহন করতে বাধ্য নয়। নারীতে প্রকাশিত কোনো লেখা বিনা অনুমতিতে অন্য কোথাও প্রকাশ কপিরাইট আইনের লংঘন বলে গণ্য হবে।


মন্তব্য টি

লেখক পরিচিতি

সানজিদা রোমান

লেখক একজন প্রবাসী

ফেসবুকে আমরা