কাবাঘরের ভেতরের আল্লাহও নারীদের নিরাপত্তা দিতে পারে না

শনিবার, ফেব্রুয়ারী ১০, ২০১৮ ৬:৫০ PM | বিভাগ : প্রতিক্রিয়া


কাবাঘর তাওয়াফ করতে গিয়ে নারীদের যৌন হয়রানি কোনো নতুন ঘটনা নয়। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই নারীরা এটা চেপে যান নানা দিক ভেবে। ইউটিউবে একটা ভিডিও দেখেছিলাম যেখানে দু’জন নারী হজরে আসওয়াদ (কালা পাথর) একটু ছুঁতে চেষ্টা করতে গিয়ে পিছন থেকে হাজিদের নাযেহালের শিকার হন। ভিডিওর লিংক এখানে দিলাম: https://www.youtube.com/watch?v=JncMdZNzZDU

পাকিস্তানী একজন নারী হজ্ব করতে গিয়ে অপর হাজি পুরুষের বিরুদ্ধে তার স্পর্শকাতর অংশে হাত দেয়ার অভিযোগ করেছেন। নারীরা পর্দা করে না বলেই তারা ধর্ষণের শিকার হয়, কলা ছিলা থাকলে মাছি বসবেই, পহরেজগার পর্দাশীন নারীদের কেউ যৌন হয়রানি করে না… ইত্যাদি সবরকম কলা এতকাল ঝুলিয়ে আসলেও এবার খোদ ধার্মীক নারীরাই তাদের পর্দাশীন অবস্থায় ধর্ষণ, যৌন হয়রানির কথা স্বীকার করতে শুরু করেছেন। ইবনে কাথির লিখিত প্রসিদ্ধ সর্বমান্য সীরাত গ্রন্থ ‘আল বিদায়া ওয়ান নিহায়া’-তে একটি ঘটনার বর্ণনা দেয়া আছে যেখানে হযরত উমার তার মামাতো বোনকে মসজিদে যেয়ে নামাজ পড়া ঠেকাতে রাতের আঁধারে অন্ধকারে লুকিয়ে থেকে পিছন থেকে তার নিতম্বে হাত দিয়েছিলো যাতে মামাতো বোন এরকম যৌর হয়রানি এড়াতে বাড়িতে বসেই নামাজ পড়ে। ইসলামের প্রথম যুগে নারী পুরুষ একত্রে মসজিদে নামাজ পড়লেও সেটা উমারের পছন্দ ছিলো না। নবীর স্ত্রীরা রাতের আঁধারে বাইরে প্রাকৃতিক কর্ম সারতে গেলেও সেটা উমারের কাছে পর্দালঙ্ঘন বলে মনে হতো।

কাবাঘরে চারপাশে সাত পাক দেয়ার সময় যে পরিমাণ মানুষ জড়ো হয় সেখানে কোনো রকম শৃঙ্খলাই আশা করা যায় না। শয়তানকে ঢিল মরতে গিয়ে হাজি সাহেবদের পায়ের নিচে পড়ে গণমৃত্যুকে গণহত্যাই বলা উচিত। মুসলমানদের সাধারণ বিশ্বাস হচ্ছে কাবার উপর দিয়ে কোনো পাখি উড়ে যেতে পারে না এর সন্মান রক্ষার্থে। অথচ কবুতরের বিষ্ঠায় কাবার গিলাফের উপরের অংশ নোংরা হয়ে থাকে। মুসলমানরা বিশ্বাস করে কাবাঘরকে কেউ বিনষ্ট করতে পারবে না। একে কেউ অপবিত্র করতে পারবে না। অথচ কাবাঘরের ভিতরের আল্লাহ তাকে সাতবার পাক দিতে আসা নারীদেরই নিরাপত্তা দিতে পারেন না! পকেটমারদের হাত থেকে হাজিসাবদের পকেট রক্ষা করতে পারেন না!...

আরবের বাইরের মুসলমনাদের ইসলাম সম্পর্কে অদেখা যে আবেগ ইসলাম নিয়ে কাজ করে তার মোহভঙ্গ ঘটে সামনে থেকে ইটপাথরের এই কাবাঘর দর্শন করে। যখন দেখে দাড়িঅলা আরবগুলো অবলীলায় কাবাকে পিছনে রেখে পশ্চাদ্দেশে আঙ্গুল ঢুকিয়ে চুলকাতে থাকে… 


  • ৫৬৮ বার পড়া হয়েছে

পূর্ববর্তী লেখা পরবর্তী লেখা

বিঃদ্রঃ নারী'তে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার বিষয়বস্তু, ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া ও মন্তব্যসমুহ সম্পূর্ণ লেখকের নিজস্ব। প্রকাশিত সকল লেখার বিষয়বস্তু ও মতামত নারী'র সম্পাদকীয় নীতির সাথে সম্পুর্নভাবে মিলে যাবে এমন নয়। লেখকের কোনো লেখার বিষয়বস্তু বা বক্তব্যের যথার্থতার আইনগত বা অন্যকোনো দায় নারী কর্তৃপক্ষ বহন করতে বাধ্য নয়। নারীতে প্রকাশিত কোনো লেখা বিনা অনুমতিতে অন্য কোথাও প্রকাশ কপিরাইট আইনের লংঘন বলে গণ্য হবে।


মন্তব্য টি

লেখক পরিচিতি

সুষুপ্ত পাঠক

বাংলা অন্তর্জালে পরিচিত "সুষুপ্ত পাঠক" একজন সমাজ সচেতন অনলাইন একটিভিস্ট ও ব্লগার।

ফেসবুকে আমরা