নারীবাদী সাহিত্যতত্ব: লুপ্ত অতলান্তিক ও ভবিষ্যৎ বিনির্মাণ - ০১

রবিবার, ডিসেম্বর ২২, ২০১৯ ১০:৪৩ PM | বিভাগ : সাহিত্য


“Alas! A woman that attempts the Pen,

Such an intruder on the rights of men,

Such a presumptuous creature is esteemed

The fault can by no virtue be redeemed

-Anne Finch, Countess of Winchelsea.

তাহার পর বৎসরে বালিকার বয়স নয় বৎসর, তখন একদিন সকালবেলা হইতে তাহাদের বাড়ীতে সানাই বাজিতে লাগিল। উমার বিবাহ। বরটির নাম প্যারীমোহন, গোবিন্দলালের সহযোগী লেখক। বয়স যদিও অধিক নয় এবং লেখাপড়া কিঞ্চিৎ শেখা আছে, তথাপি নব্যভাব তার মনে কিছুমাত্র প্রবেশ করিতে পারে নাই। উমা বেনারশি শাড়ি পরিয়া ঘোমটায় মুখখানি আবৃত করিয়া, কাঁদিতে শ্বশুরবাড়ি গেলো। মা বলিয়া দিলেন, ‘বাছা, শ্বশুড়ির কথা মানিয়া চলিস। ঘরকন্নার কাজ করিস, লেখাপড়া লইয়া থাকিস নে!... বহুদিন আর সে লেখে নাই, কিন্তু, একদিন শরৎকালের প্রভাতে একটি গায়িকা ভিখারিনী আগমনীর গান গাইতেছিলো। উমা জানালার গরাদের উপর মুখ রাখিয়া চুপ করিয়া শুনিতেছিলো। একে শরৎকালের রৌদ্রে ছেলেবেলাকার সকল কথা মনে পড়ে, তাহার উপরে আগমনীর গান শুনিয়া সে আর থাকিতে পারিলো না। .. গোপনে গায়িকাকে ডাকিয়া গৃহদ্ধার রুদ্ধ করিয়া বিচিত্র বানানে এই গানটা খাতায় লিখিতে আরম্ভ করলো।

তিলকমঞ্জরী, কনকমঞ্জরী এবং অনঙ্গমঞ্জরী সেই ছিদ্রযোগে সমস্ত দেখিলো এবং সহসা করতালি দিয়া বলিয়া উঠিলো, “বউদিদি, কী করছো আমরা সমস্ত দেখেছি।”

তখন উমা তাড়াতাড়ি দ্বার খুলিয়া বাহির হইয়া কাতরস্বরে বলিতে লাগিলো, “লক্ষ্মী ভাই, কাউকে বলিস নে ভাই তোদের দুটি পায়ে পড়ি ভাই, আমি আর করবো না, আমি আর লিখবো না।”

অবশেষে উমা দেখিলো, তিলকমঞ্জরী তাহার খাতাটার প্রতি লক্ষ করিতেছে। তখন সে ছুটিয়া গিয়া খাতাটি বক্ষে চাপিয়া ধরিলো। ননদীরা অনেক বলপ্রয়োগ করিয়া সেটি কাড়িয়া লইবার চেষ্টা করিলো; কৃতকার্য না হইয়া, অনঙ্গ দাদাকে ডাকিয়া আনিলো।

... প্যারী মোহন আসিয়া গম্ভীরভাবে খাটে বসিলো, মেঘমন্দ্রস্বরে বলিলো, “খাতা দাও।”

... প্যারীমোহন খাতাটি লইয়া বালিকার লেখাগুলি উচ্চেঃস্বরে পড়িতে লাগিলো; শুনিয়া উমা পৃথিবীকে উত্তরোত্তর গাঢ়তর আলিঙ্গনে বদ্ধ করিতে লাগিলো; এবং অপর তিনটি বালিকা-শ্রোতা খিল্ খিল্ করিয়া হাসিয়া অস্থির হইলো। সেই হইতে উমা আর সে খাতা পায় নাই।

প্যারীমোহনেরও সূক্ষ্মতত্ত্বকন্টকিত বিবিধ প্রবন্ধপূর্ণ একখানি খাতা ছিলো, কিন্তু সেটি কাড়িয়া লইয়া ধ্বংস করে এমন মানবহিতৈষী কেহ ছিলো না।”

(খাতা, গল্পগুচ্ছ: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।)

নারীবাদ’ আমাদের খুব চেনা একটি শব্দ-বন্ধ। ‘নারীবাদী সাহিত্য তত্ব’ ততোটা নয়। কিছু যেনো ছায়া-মেদুরতা। যদিও নারীবাদী সাহিত্য তত্ব হলো বৃহত্তরভাবে নারীবাদের অগ্রাভিযানের গুরুত্বপূর্ণ সেনানী। ঠিক যেভাবে পুরুষতন্ত্রের ‘লৈঙ্গিক রননীতি (Sexual Politics)’- র এক গুরুত্বপূর্ণ রণফ্রন্ট হলো, ‘সাহিত্যিক রাজনীতি’ (Textual Politics)| সত্যি বলতে পুরুষতন্ত্রের এই `সাহিত্যিক রাজনীতি” নামক দানোটি মাঝে মাঝে ছড়িয়ে যায় এর উৎসমুখ `লৈঙ্গিক রাজনীতি’কেও। গত ছয়/ সাড়ে ছয় হাজার বৎসরের পুরুষতান্ত্রিক সভ্যতার আচ্ছাদনে দানোটি গায়ে-গতরে পুরুষ্টু হয়েছে খুব। কাজেই ছায়ার লড়াই হিসেবে হলেও লড়াই তো শুরু করতেই হয় এই অতিকায় দানোটির বিরুদ্ধে। পশ্চিমা নারীবাদীরা এই লড়াইকে আখ্যা দিয়েছেন "Feminist Literary Theory Movement" বা ‘নারীবাদী সাহিত্যতত্ত্ব আন্দোলন।’

প্রথম ঢিলটি ছুঁড়েছিলেন ভার্জিনিয়া উল্ফ। সেই কোন ১৯২৯ সালে, তাঁর "A Room of One’s Own” গ্রন্থটি প্রকাশের মাধ্যমে। তখনো ব্রিটেনে মেয়েরা ভোটাধিকার পায়নি, পৃথিবী দেখেনি দ্বিতীয় মহাযুদ্ধ। ভার্জিনিয়ার ঐ বইটিই ছিলো বিশ্বে প্রথম নারীবাদী সাহিত্য তাত্বিকতার সূত্রপাত। ‘মেয়েদের লেখা’ বলতে বস্তুটা আসলে কী? কবে থেকে লেখা শুরু করেছে তারা? লেখার জগতে তাদের সংখ্যা কেনো এতো কম, কী তাদের পথে প্রতিবন্ধকতা? ইত্যকার নানা প্রশ্ন আলোচনা করেছিলেন তিনি তাঁর ঐ গ্রন্থে। অতঃপর দীর্ঘ চার দশকের নীরবতা। ষাটের শেষে ও সাহিত্যে মেয়েদের ‘প্রান্তিক (Peripheral)’ ও ‘যৌনবস্ত (Sex Object)’ অবস্থান সম্পর্কে। ভার্জিনিয়ার প্রশ্নগুলোকে আরো ব্যাপক, বিশিদ ও গভীর করে ছড়িয়ে দিলেন তাঁরা।

চলমান...

দ্বিতীয় পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন


  • ৪৭৫ বার পড়া হয়েছে

পূর্ববর্তী লেখা পরবর্তী লেখা

বিঃদ্রঃ নারী'তে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার বিষয়বস্তু, ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া ও মন্তব্যসমুহ সম্পূর্ণ লেখকের নিজস্ব। প্রকাশিত সকল লেখার বিষয়বস্তু ও মতামত নারী'র সম্পাদকীয় নীতির সাথে সম্পুর্নভাবে মিলে যাবে এমন নয়। লেখকের কোনো লেখার বিষয়বস্তু বা বক্তব্যের যথার্থতার আইনগত বা অন্যকোনো দায় নারী কর্তৃপক্ষ বহন করতে বাধ্য নয়। নারীতে প্রকাশিত কোনো লেখা বিনা অনুমতিতে অন্য কোথাও প্রকাশ কপিরাইট আইনের লংঘন বলে গণ্য হবে।


মন্তব্য টি

লেখক পরিচিতি

অদিতি ফাল্গুনী

লেখক ও কলামিস্ট

ফেসবুকে আমরা